সকাল ১১:৪৭ মঙ্গলবার ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

বাগেরহাটে উল্টে যাওয়া গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কার উদ্ধার

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : June 2, 2018 , 4:44 pm
ক্যাটাগরি : আর্ন্তজাতিক
পোস্টটি শেয়ার করুন

বাগেরহাটের রামপালে যমুনা এলপিজি গ্যাস কোম্পানির গ্যাস নিয়ে রাস্তার পাশে উল্টে পড়া গ্যাসবাহী ট্যাঙ্ক লড়িটি প্রায় ১৪ ঘণ্টা পরে উদ্ধার করা হয়েছে। ট্যাঙ্কারটিতে প্রায় সাড়ে সতেরো মেট্রিকটন গ্যাস ছিল।

শনিবার বিকাল সাড়ে পাঁচটায় মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের দুটি (ক্রেন) উদ্ধারযান উল্টে যাওয়া গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কটি কোনো দুর্ঘটনা ছাড়াই নিরাপদে সরিয়ে নেয়। উদ্ধার ট্যাঙ্ক লড়িটি বিকেলেই মংলা উপজেলার দিগরাজ এলাকায় অবস্থিত যমুনা গ্যাস প্লান্টে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় ওই মহাসড়কে প্রায় আধাঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে। উদ্ধার অভিযান শেষ হলে তা আবার স্বাভাবিক হয়।

শুক্রবার রাত তিনটার দিকে মংলা থেকে বগুড়ায় যাওয়ার পথে খুলনা-মংলা মহাসড়কের বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার সোনাতুনিয়া বাসস্ট্যান্ড এলাকায় গ্যাসবাহী ওই ট্যাঙ্কারটি রাস্তার উপরে উল্টে যায় এবং তা ফেটে গিয়ে সোনাতুনিয়া এলাকায় গ্যাস ছড়িয়ে পড়ে। এসময় দুর্ঘটনায় লড়ির চালক আব্দুল করিম ও তার সহকারি শহীদুল্লাহ আহত হন। এরপর ওই এলাকার মানুষের মধ্যে আতংঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে ফায়ার সার্ভিস ও প্রশাসনের লোকজন সেখানে পৌঁছে বাসাবাড়িতে আগুন না জ¦ালাতে বিশেষ সতর্ককতা জারি করে। গ্যাসবাহী ট্যাঙ্ক লড়িটি যতক্ষণ না সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে ততক্ষণ ওই এলাকায় আগুনের ব্যবহার বন্ধ রাখতে মাইকিং করে প্রশাসন।
তবে কিভাবে গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কারটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তা এখনো জানা যায়নি।

এদিকে, নিরাপদে গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কারটি সরিয়ে নেওয়া প্রশাসন ও স্থানীয়রা স্বস্তির নিঃশ^াস ফেলেছে।

ফায়ার সার্ভিসের খুলনা কার্যালয়ের উপ পরিচালক মো. আবুল হোসেন বলেন, মংলা বন্দরের দুটি আধুনিক যান ব্যবহার করে উল্টে যাওয়া গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কারটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। প্রায় ১৪ ঘণ্টা পর এটি উদ্ধার করা হয়েছে। লড়ি থেকে যে গ্যাস বের হচ্ছিল তা আমরা বালি ও ফোম ব্যবহার করে বন্ধ রাখার চেষ্টা করি। গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কারটি নিরাপদে মংলা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

স্থানীয়রা বলছেন, সকাল থেকে আমরা আতংকিত ছিলাম। নিরাপদে গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কারটি সরিয়ে নেওয়ায় তারা এখন নিরাপদ। তাই প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তারা।

রামপাল থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান বলেন, গ্যাস ছড়িয়ে পড়ায় পর রামপালের সোনাতুনিয়া এলাকায় সতকর্তা জারি করে মাইকিং করা হয়। স্থানীয়দের মধ্যে একধরনের আতংঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। নিরাপদে গ্যাসবাহী ট্যাঙ্কারটি সরিয়ে নেওয়ায় সবাই স্বস্তির নিঃশ^াস ফেলেছে। মানুষের মধ্যে এখন আর কোন আতঙ্ক নেই।