রাত ৪:৩৬ রবিবার ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

কোন রোগের পরীক্ষা কী তালিকা দিল ডব্লিউএইচও

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : May 28, 2018 , 5:04 pm
ক্যাটাগরি : স্বাস্থ্য
পোস্টটি শেয়ার করুন

রোগ নির্ণয়ে এত সব পরীক্ষা? এসব পরীক্ষা করাতে গিয়ে একগোছা টাকার গচ্ছা। ডাক্তারের প্রেসক্রিপশনে রোগ ও রক্ত পরীক্ষার তালিকা দেখে রোগীদেরও খেদের শেষ থাকে না।

আবার দেশে ডাক্তার দেখানোর পর সামর্থবানরা অন্য দেশেও চিকিৎসকদের আরেকপ্রস্থ পরামর্শ নেওয়ার চেষ্টা করেন। আবার কেউ কেউ এসব পরীক্ষার প্রতিবেদন বিশ্বাস করতে গিয়েও অবিশ্বাসের দোলচলে পড়েন।

বিশেষ করে ছেলেমেয়ের রোগ নির্ণয়ে ভুলভ্রান্তি বা রক্ত পরীক্ষার ভুলে ভরা রিপোর্টের কারণে চিকিৎসা বিভ্রাট হয়েছে, এমনকি সঠিক সময়ে সঠিক পরীক্ষা করালে তাদের অকালে ঝরে যেতে হতো না—এমন ধারণার বশবর্তী মানুষের সংখ্যাও নেহাত কম নয়।

এবার সুনির্দিষ্ট রোগ ধরতে কোন কোন পরীক্ষা করানো উচিত— তা নিয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব দূর করে একটি আদর্শ গাইডলাইন তৈরি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

১৫ মে বিশ্বের সব সদস্য দেশের জন্য এসেনশিয়াল ডায়গনস্টিক টেস্টস বা অপরিহার্য পরীক্ষার তালিকা প্রকাশ করেছে। নিজেদের ওয়েবসাইটে এ খবর জানিয়েছে সংস্থাটি।

ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, ১১৩ ধরনের পরীক্ষার এই তালিকায় সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে মানুষের রক্ত এবং প্রস্রাবের নমুনা। এমনভাবে তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে, যাতে পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তে, যে কোনও দেশে সহজেই এই পরীক্ষাগুলি করানো যায়।

একেবারে প্রাথমিক স্তরের চিকিৎসা পরিসেবায় বা যে জায়গায় স্বাস্থ্য পরিকাঠামো খুব খারাপ বা বিদ্যুৎ এবং প্রশিক্ষিত কর্মীর অভাবের মধ্যেও যাতে পরীক্ষা করা যায়, এমন কিছু অপরিহার্য পরীক্ষার নামও রয়েছে এই তালিকায়।

এই তালিকায় পাঁচটি টেবিল রয়েছে। একদিকে রয়েছে রোগ বা চিকিৎসার বিভাগের নাম। যেমন, মাইক্রোবায়োলজি, হেমাটোলজি, সেরোলজি, ব্লাড ট্রান্সফিউশন, হেপাটাইটিস বি, সি ইত্যাদি।

দ্বিতীয় টেবিলে রয়েছে পরীক্ষার নাম। যেমন, হিমোগ্লোবিন, ডব্লুবিসি, গ্লুকোজ, অ্যালবুমিন, ব্লাড টাইপিং ইত্যাদি।

কেন এবং কী পদ্ধতিতে এই পরীক্ষা করা হচ্ছে—তা রয়েছে তৃতীয় ও চতুর্থ টেবিলে। রক্ত, সিরাম বা মূত্র—নমুনার নাম লেখা রয়েছে পঞ্চম টেবিলে।

এমনভাবে এই তালিকা প্রকাশিত হয়েছে যাতে কোনও রকম দ্বিধা-দ্বন্দ্বের অবকাশ না থাকে। যেমন হিমোগ্লোবিন পরীক্ষা করা হয় অ্যানিমিয়া নির্ধারণে।

এছাড়াও ডেঙ্গু, ম্যালেরিয়া ইত্যাদি রোগ ও বিভিন্ন সংক্রমণজনিত অসুখ নির্ণয়ে রক্তের এই উপাদানের মাত্রা মাপা হয়।

পাশাপাশি কিছু কিছু ওষুধ চলাকালীন শারীরিক অবস্থা জানতেও এই পরীক্ষা করতে হয়। অ্যালবুমিন পরীক্ষা করা উচিত অপুষ্টির কথা জানতে।

রোগীর লিভার ও কিডনির অসুখ আছে কি না, তাও জানা যায় এই পরীক্ষায়।

এভাবে ১১৩টি পরীক্ষা কেন বা কোন যুক্তিতে কীভাবে করতে হবে, সুস্পষ্টভাবে তার বিধান দিয়েছে ডব্লিউএইচও।

১১৩টি পরীক্ষার মধ্যে ৫৮টি রাখা হয়েছে সাধারণ রোগভোগের সমস্যার কারণ খুঁজতে। তালিকার বাকি ৫৫টি পরীক্ষা রাখা হয়েছে সুনির্দিষ্ট কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ রোগকে চিহ্নিত করতে। যেমন: এইচআইভি, টিবি, ম্যালেরিয়া, হেপাটাইটিস বি এবং সি, জরায়ু মুখের ক্যান্সার, সিফিলিস ইত্যাদি রোগ ধরতে।

এ প্রসঙ্গে ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক তেদ্রস আদহানম গ্যাবিয়েসাস বলেন, ‘চিকিৎসার প্রথম ধাপ হলো সঠিক রোগ নির্ণয়। পরীক্ষার উপযুক্ত পরিকাঠামোর অভাবে একটি মৃত্যুও কাঙ্ক্ষিত নয়।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তৈরি মেডিকেল টেস্টের লিস্ট বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অত্যন্ত কার্যকর ভূমিক পালন করবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটির মেডিকেল স্কুলের অধ্যাপক ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদস্য মাধুকর পাই প্রতিবেদন প্রকাশের পর এটিকে রোমাঞ্চকর অনুভূতি বলে উল্লেখ করেছেন।

মাধুকর জানান, দুই বছরের চেষ্টার পর এ প্রতিবেদন চূড়ান্ত করা সম্ভব হয়েছে। এখন থেকে প্রতিটি দেশই ডব্লিউএইচওর তালিকানুযায়ী প্রয়োজনীয় মেডিকেল পরীক্ষার তালিকা তৈরি করতে পারবে বলে মনে করেন এ বিশেষজ্ঞ।