সকাল ৭:৪৮ শনিবার ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

টাঙ্গাইলে একই রশিতে স্বামী-স্ত্রীর আত্মহত্যা

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : May 27, 2018 , 7:02 am
ক্যাটাগরি : দেশজুড়ে
পোস্টটি শেয়ার করুন

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে এক দম্পতি গলায় রশিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তারা ঢাকায় একটি গার্মেন্টে কাজ করতেন। প্রথম স্ত্রীকে রেখে দ্বিতীয় স্ত্রীকে তালাক দিতে পরিবার থেকে চাপ দেয়ায় এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

শনিবার রাতে উপজেলার বগা (মধ্যপাড়া) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রবিবার সকাল ১০ টার দিকে পুলিশ তাদের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে।

নিহতরা হলো বগা (মধ্যপাড়া) গ্রামের নূরু কাজীর ছেলে তারা কাজী (২৭) ও তার স্ত্রী গাইবান্ধার গোবিন্দ্রগঞ্জ উপজেলার গোয়ালপাড়া গ্রামের খাজা মিয়ার মেয়ে খাদিজা খাতুন (২৪)।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, তারা কাজী ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করার সময় প্রথম স্ত্রী রেখে ৩ মাস আগে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। দ্বিতীয় বিয়ে করায় প্রথম স্ত্রী সুমাইয়্যা বেগম আদালতে মামলা করেন। বিয়ের পর দ্বিতীয় স্ত্রী খাদিজাকে নিয়ে ঢাকায় চলে যান তারা কাজী। ঢাকা থেকে বাড়ী আসলে পরিবারের সবাই দ্বিতীয় স্ত্রীকে তালাক দিতে বলেন। কিন্তু রাতেই বাড়ীর পাশে আমগাছে দুইজন ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন তারা কাজী ও খাদিজা।

নিহত তারা কাজীর প্রথম স্ত্রী সুমাইয়্যা বেগম বলেন, আমার সঙ্গে ওর কোন দ্বন্দ্ব ছিল না। তিন দিনের মেয়ে তামান্নাকে রেখে সে ঢাকায় বিয়ে করেছে। আমি আমার বাবার বাড়িতেই থাকি।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (সংরক্ষিত) রুবি আক্তার জানান, তারা কাজীর শনিবার আমার কাছে এসে বলেছিলেন সে দ্বিতীয় স্ত্রীকে তালাক দেবেন। শনিবার ইফতারের পর বিষয়টি নিয়ে বসার কথা ছিল। পরে শুনলাম দ্বিতীয় স্ত্রীকে ঢাকায় পৌঁছে দিতে ঘাটাইল গেছেন।

সংগ্রামপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম মিয়া জানান, দ্বিতীয় স্ত্রীকে ছাড়তে পারবে না বলেই হয়তো দুজনে মিলে একসঙ্গে আত্মহত্যা করেছেন।

ঘাটাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল ইসলাম বলেন, দ্বিতীয় স্ত্রীকে ছাড়তে পারবে না বলে হয়তো আবেগে আত্মহত্যা করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।