সন্ধ্যা ৭:২২ বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

মহারণে নামছে রিয়াল-লিভারপুল

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : May 26, 2018 , 5:52 am
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে মুখোমুখি হবে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ আর ইংলিশ ফেভারিট লিভারপুল। শনিবার (২৬ মে) রাতে ইউক্রেনের কিয়েভে শিরোপা লড়াইয়ে রেকর্ড ১২ বারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে লিভারপুল। জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখকে বিদায় করে ফাইনালে উঠেছে রিয়াল। আর ইতালির ফেভারিট রোমাকে টপকে ফাইনালের টিকিট কাটে লিভারপুল। বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে একটায় শুরু হবে হাইভোল্টেজ ম্যাচটি। সরাসরি দেখাবে সনি টেন ওয়ান, টু এবং থ্রি।

ইতালির ফেভারিট রোমার বিপক্ষে সেমিফাইনালে দ্বিতীয় লেগের খেলায় ৪-২ গোলে হেরেছিল লিভারপুল। আর প্রথম লেগে ৫-২ গোলে হেরেছিল রোমা। দুই লেগ মিলিয়ে ৭-৬ গোলে এগিয়ে থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল নিশ্চিত করে লিভারপুল। ১১ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পা রেখেছে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। ষষ্ঠ শিরোপার জন্য উন্মুখ হয়ে থাকবে অলরেডসরা। আর বায়ার্ন মিউনিখের পর প্রথম দল হিসেবে টানা তৃতীয়বারের মতো ইউরোপ সেরা হওয়ার হাতছানি রিয়াল মাদ্রিদের সামনে। ১৯৭৪ থেকে ১৯৭৬ সাল পর্যন্ত ওই সময়ের ইউরোপিয়ান কাপে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বায়ার্ন। জিতলে প্রথম দল হিসেবে টুর্নামেন্টের আধুনিক সংস্করণে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনন্য কীর্তি গড়বে রিয়াল।

ফাইনালের আগে রিয়াল-লিভারপুলের অবস্থান দেখে নেওয়া যাক:

রিয়াল মাদ্রিদ:
উয়েফা ক্লাব র‌্যাংকিংয়ে এক নম্বরে অবস্থান করছে রিয়াল। স্প্যানিশ ক্লাবটি ইউরোপিয়ান কাপের শিরোপা জিতেছে ১২ বার আর হেরেছে তিনবার। গতবার জুভেন্টাসকে হারিয়ে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে নামবে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। গতবার জুভিদের ৪-১ গোলে হারিয়েছে রিয়াল। এই মৌসুমে ১২ ম্যাচ খেলে রিয়াল জিতেছে ৮টি ম্যাচ, দুটি ম্যাচ ড্র করার পাশাপাশি হেরেছে দুটি ম্যাচ। দলের সেরা তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো সর্বোচ্চ ১৫ গোল করেছেন। পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডের সামনে পঞ্চমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জয়ের হাতছানি। স্প্যানিশ লা লিগায় তিন নম্বরে থেকে মৌসুম শেষ করেছে জিদানের শিষ্যরা।

ফাইনালের পথে ‘এইচ’ গ্রুপে থেকে রিয়াল রানার্সআপ হয়েছিল। শেষ ষোলোতে পিএসজিকে দুই লেগ মিলিয়ে হারিয়েছে ৫-২ অ্যাগ্রিগেটে। কোয়ার্টার ফাইনালে জুভেন্টাসকে টপকে যায় ৪-৩ গোলের অ্যাগ্রিগেটে। আর সেমি ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখকে ৪-৩ গোলের অ্যাগ্রিগেটে বিদায় করে ফাইনালের টিকিট কাটে বেল-বেনজেমা-রোনালদোরা।

লিভারপুল:
উয়েফা ক্লাব র‌্যাংকিংয়ে ২২ নম্বরে আছে ইংলিশ প্রিমিয়ারে খেলা লিভারপুল। ইউরোপিয়ান কাপের ফাইনালে সাতবার খেললেও শিরোপা জিতেছে পাঁচবার। ২০০৭ সালে সবশেষ ফাইনালে খেলেছিল অলরেডসরা। সেবার এসি মিলানের কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল লিভারপুল। এই মৌসুমে ১২ ম্যাচ খেলে ইংলিশ ক্লাবটি সাতটি জয়, চারটি ড্র আর একটি ম্যাচ হেরেছে। দলের সেরা তারকা ব্রাজিলের স্ট্রাইকার রবার্তো ফিরমিনো এবং মিশরের তারকা স্ট্রাইকার মোহামেদ সালাহ ১০টি করে গোল করেছেন। ইংলিশ লিগে চার নম্বরে থেকে মৌসুম শেষ করেছে লিভারপুল।

ফাইনালে উঠতে অনেক বাধা পেরুতে হয়েছে লিভারপুলকে। গ্রুপ স্টেজে সুযোগ করে নিতে হফেনহেইমের বিপক্ষে খেলতে হয়েছে প্লে অফ ম্যাচ। সেখানে দুই লেগ মিলিয়ে লিভারপুল ৬-৩ অ্যাগ্রিগেট গ্রুপ ‘ই’তে জায়গা করে নেয়। মূল আসরের গ্রুপ পর্বে তারা চ্যাম্পিয়ন হয়। শেষ ষোলোতে পোর্তোকে ৫-০ অ্যাগ্রিগেটে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে। সেখানে আরেক ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটিকে ৫-১ গোলের অ্যাগ্রিগেটে হারিয়ে সেমিতে ওঠে। সেমি ফাইনালে ৭-৫ অ্যাগ্রিগেটে রোমাকে টপকে ফাইনালের টিকিট কাটে ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা।

মুখোমুখি দেখা:
এর আগে পাঁচবারের মুখোমুখি দেখায় জয়ের পাল্লা ভারী লিভারপুলের দিকে। রিয়ালকে ৬ গোল হজম করিয়ে জিতেছিল তিনবার। আর দুইবার রিয়াল জিতেছে, লিভারপুলকে দিয়েছে ৪ গোল।

২০১৪-১৫ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে রিয়াল জিতেছিল ৩-০ গোলে। জোড়া গোল করেছিলেন করিম বেনজেমা, বাকি গোলটি করেন রোনালদো। একই আসরে ফিরতি লেগে রিয়াল জিতেছিল ১-০ গোলে। সেই ম্যাচেও গোল করেছিলেন ফরাসি তারকা বেনজেমা।

২০০৮-০৯ মৌসুমে নকআউট রাউন্ডের প্রথম লেগে রিয়ালকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল লিভারপুল। ম্যাচের ৮২ মিনিটে গোল করেছিলেন বেনাইয়ুন। ফিরতি লেগে রিয়ালকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল ইংলিশ ক্লাবটি। জোড়া গোল করেছিলেন স্টিফেন জেরার্ড (২৮ ও ৪৭ মিনিটে)। ১৬ মিনিটে গোল করেন তোরেস আর ৮৮ মিনিটে বাকি গোলটি করেন দোসেনা।

তারও আগে ১৯৮০-৮১ মৌসুমে লিভারপুল ১-০ গোলে হারিয়েছিল রিয়ালকে। ফাইনাল ম্যাচের ৮১তম মিনিটে কেনেডির গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে অলরেডসরা।