সন্ধ্যা ৭:৪৮ বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

বর্ষায় চুলের যত্নে কিছু টিপস

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : May 24, 2018 , 6:40 am
ক্যাটাগরি : ফিচার
পোস্টটি শেয়ার করুন

বৃষ্টি এবং মেঘলা আবহাওয়া যেন গরমের তাপদাহ থেকে হাফ ছেড়ে বাঁচে সবাই, কিন্তু সেই সঙ্গে এই মৌসুমে কীভাবে চুলের যত্ন নেবে তা নিয়ে দুশ্চিন্তাও চলে আসে সবার মনে। গরম এবং বৃষ্টির দিনে স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় চুল অনেকটা নিস্তেজ হয়ে পড়ে। কাজের ব্যস্ততার জন্য পার্লারে যাওয়ার সময়ও মেলে না অনেকের। তাই এই মৌসুমে ঘরে বসেই নিন চুলের বিশেষ যত্ন। দেখে নিন এই ঋতুতে চুলের যত্ন নেওয়ার বেশ কিছু টিপস।

প্রথমেই পরিচর্যার আগে জেনে নিতে হবে চুলের ধরন। স্বাভাবিক তৈলাক্ত ও স্তবক প্রত্যেক ধরনের চুলের যত্ন আলাদাভাবে করতে হবে। দেখা যায়, অনেকেই শীতকালে চুলের যত্ন নিয়ে থাকে। কিন্তু বর্ষার কথা ভুলে যান। অনেকেই জানেন না এসময়ে চুলের বেশি যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। কেননা এসময় গোমট ভাব থেকে চুলে বিভিন্ন রকমের সমস্যা হয়ে থাকে। চুলপড়া, খুশকি, স্ক্যাল্পে ঘামাচির মতো বিভিন্ন ধরনের সমস্যা নিয়ে বিপাকে পড়তে হয়। তাই এ সময় চুলের ব্যাপারে অনেক যত্নবান হতে হবে।

এই ঋতুতে স্যাঁতস্যাঁতে ভাবের জন্য চুল প্রচুর পরিমাণে ঝরে পড়ে। অনেক সময় বৃষ্টির পানি চুলে লাগলে আমরা শুধু নরমাল পানি দিয়ে পরিষ্কার করি। এটা একদম ঠিক নয়। সঙ্গে সঙ্গে অবশ্যই শ্যাম্পু দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। কারণ পরিষ্কারের অভাবেই চুল শুষ্ক, নিষ্প্রাণ ও উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে। সপ্তাহে একদিন তেল দিতে হবে। অনেকেই মাথায় তেল দিতে পছন্দ করেন না। তবে ওয়েল ম্যাসেজ সপ্তাহে একদিন করলে চুলের জন্য খুবই উপকারী। দশ দিন অন্তর অন্তর প্যাক লাগাতে হবে।

যাদের চুলের ধরন তৈলাক্ত, তারা কন্ডিশনার ব্যবহার করবেন না। আর যাদের চুল শুষ্ক, তারা শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার দুটোই ব্যবহার করবেন। একটি উপকারী প্যাক হচ্ছে- টকদই, মধু, পাকা পেঁপে বা পাকা কলা ভালোভাবে পেস্ট করে চুলে ব্যবহার করতে পারেন। এ প্যাকটি ২০ মিনিট রেখে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলতে হবে।

যাদের স্বাভাবিক ধরনের চুল তারা সহজেই চুলের যত্ন নিতে পারবেন। তবে মনে রাখতে হবে চুলের গোড়ায় যেন ময়লা জমে না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। প্রতিদিন শ্যাম্পু করতে হবে। তবে বেশি করে পানি দিয়ে শ্যাম্পু পরিষ্কার করতে হবে। কন্ডিশনার একই পদ্ধতিতে করতে হবে। কন্ডিশনার করার সময় একটি বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। সেটা হল গোড়ায় লাগানো যাবে না। অবশ্যই আগায় লাগাতে হবে। ভালোভাবে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে যেন চুলে কন্ডিশনারের গন্ধও না থাকে।

যাদের চুলের ধরন শুষ্ক তাদের জন্য একটি উপকারী প্যাক হচ্ছে আমলা। এ প্যাক বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। আমলা প্যাকের সঙ্গে টকদই ভালোভাবে মিশিয়ে মাথায় লাগাতে হবে। ১৫ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। আর এ প্যাকটি তৈলাক্ত এবং স্বাভাবিক চুলের জন্যও উপকারী।

অনেকে গোসল করার পর চুল না শুকিয়ে বেঁধে রাখে। এটা ঠিক নয়। কোনোভাবেই চুল ভেজা রাখা যাবে না। চুল সুন্দর রাখতে মাথার ত্বকও ভালো রাখা চাই। এছাড়া নিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, প্রচুর মৌসুমি ফল, প্রচুর পরিমাণে পানি, সবজি, ব্যক্তিগত অভ্যাস ও ঘুমের প্রতি নজর দিতে হবে। তবেই আমরা যে কোনো আবহাওয়াতেই চুলকে সুন্দর, মসৃণ ও ঝলমলে রাখতে পারবে।