রাত ১২:২৫ শুক্রবার ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আর ফিরবেন না গণফোরামে!

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : মে ১, ২০১৯ , ১০:৪৭ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজনীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

অনেকে মনে করছেন শপথের পথ দেখিয়েছেন সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। সিদ্ধান্ত সঠিক ছিলো তারই প্রমাণ মিলেছে বিএনপির নির্বাচিতরা সংসদে যোগ দেয়ায় মধ্য দিয়ে। তবে এ বহিষ্কৃত নেতারা দলে ফিরছেন কিনা এ নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে জনমনে।

এ প্রসঙ্গে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, জাহিদুর রহমান যদি বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের আবেদন করে তখন দল বিবেচনা করবে। তবে জাহিদুর রহমান বলেন, বহিষ্কারের কিছু নিয়ম আছে। দলের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বহিষ্কারাদেশের চিঠি পাইনি। এছাড়া দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে আমাদের অবস্থা তুলে ধরেছি। তিনি আমাদের অনুমতি দিয়েছেন। যা পরবর্তিতে মহাসচিব নিজেও বলেছেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর বলেন, আমাকে বহিষ্কার করেছে এতে আমার কোনো কিছু আসে যায় না। আমি এ দলের সাথে সম্পৃক্ত না। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এ পার্টির অবস্থান জিরো প্লাস, জিরো প্লাস, জিরো ইকুয়ালটু জিরো। আমি শুধুমাত্র সংসদ নির্বাচনে লিগেলাইজ করার জন্য অর্থাৎ নিয়ম মানার জন্য ফরম ফিলাপের আগের দিন যোগ দিয়েছি। গণফোরামের নয় জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেছি। তবে ড. কামাল হোসেন একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। আমি তাকে সম্মান করি।

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু বলেন, আমাদের এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে খুব শিগগিরই আমরা বসেবো। দল থেকে নতুন কোনো সিদ্ধান্তে হলে আপনাদের জানানো হবে। এছাড়া সুলতান মনসুর তো নিজেই বলেছেন তিনি গণফোরামের কেউ না।

গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক বলেন, সবকিছু পরিবর্তন হয়ে গেছে। এ অবস্থায় আমাদের দল থেকে নির্বাচিত দুই সদস্যের বিষয়ে দলের সিদ্ধান্ত পুর্নর্বিবেচনা হবে কিনা তা আমি এককভাবে বলতে পারবো না। তবে শিগগিরই দলীয় ফোরামে নতুন কোনো সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

তিনি আরো বলেন, পুরনো ইতিহাস সামনে আনতে চাই না। অতীতে যা হয়েছে সেটা নিয়ে না ভেবে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। বিএনপির নির্বাচিতরা শপথ নিয়েছেন এটাকে আমি ইতিবাচক মনে করি।

প্রথমে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ৭ মার্চ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন গণফোরামের ধানের শীষ নিয়ে নির্বাচিত সুলতান মোহাম্মদ মনসুর। এরপরই তাকে গণফোরাম থেকে বহিষ্কার করা হয়। ২ এপ্রিল শপথ নেন গণফোরাম থেকে নির্বাচিত সিলেট-২ আসন থেকে নির্বাচিত মোকাব্বির খান। তাকে বহিস্কার না হলেও তাকে কারণ দর্শাও নোটিশ দেওয়া হয়। তবে গত ২৬ এপ্রিল ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের বিএনপির নির্বাচিত সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান ও ২৯ এপ্রিল বিএনপির ৪ নির্বাচিত সংসদ সদস্যের শপথের মধ্য দিয়ে ইতি ঘটে নাটকীয়তার। তবে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ না নেয়ায় আসনটি এখন শূন্য হয়েছে।