দুপুর ২:২৫ মঙ্গলবার ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। | কুমিল্লা লালমাইয়ে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় সিএনজি অটোরিকশার ৫ যাত্রী নিহত।আহত-৩ | সিলেটের প্রতীক কিনব্রিজ রক্ষায় উদ্যোগ গ্রহন | কুমিল্লা সদরে র‍্যাব-১১ অভিযানে ৫ হাজার ৬ শত পিছ ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক |

এত্ত বড় বোয়াল মাছের চাষ কি তোর নানার পুকুরে হয়?

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : মার্চ ১৫, ২০১৯ , ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : গনমাধ্যম
পোস্টটি শেয়ার করুন

১২ থেকে ১৭ কেজি ওজনের বোয়াল মাছ। দাম ১ হাজার ৪০০ টাকা। যমুনা নদীর এ মাছ সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকায় নিয়ে এসেছেন সাচ্চু মিয়া নামের এক মাছ বিক্রেতা।

ঝুড়িতে করে মাছটি বিক্রির উদ্দেশ্যে তিনি রাজধানীর আজিমপুরে ভিকারুন নিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের গেটের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টার সময় পাশে থাকা এক রিকশাচালক দাবি করেন- এ জাতীয় মাছ এখন চাষ করা হয়। এ কথা শুনে তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠেন বোয়াল মাছ বিক্রেতা।

ক্ষুব্ধ হয়ে রিকশাচালকের উদ্দেশ্য তিনি বলে ওঠেন, এত্ত বড় বোয়াল মাছের চাষ কি তোর নানার পুকুরে হয়?

বিক্রেতার দাবি, এ মাছ সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীর। এ দুজনের তর্কবিতর্ক শুনে মুখ টিপে হাসছিলেন স্কুলের কোচিং থেকে মেয়েকে বাসায় নিয়ে যেতে আসা অভিভাবকরা।

বিক্রেতা জানান, সিরাজগঞ্জের ফুলছড়িঘাট থেকে তিনি একই সাইজের চারটি মাছ বিক্রির জন্য কিনে এনেছেন। প্রতিটি মাছের ওজন ১২ থেকে ১৭ কেজি। ইতোমধ্যেই ১ হাজার ৪০০ টাকা কেজি দরে তিনটি মাছ বিক্রি করেছেন। এ মাছটি বিক্রি করতে পারলে বাড়ি ফিরে যাবেন।

স্কুলগেটের সামনে অনেকক্ষণ বসে থাকলেও মাছটি বিক্রি হয়নি। তবে এত বড় মাছ দেখে স্কুলের শিশু শিক্ষার্থীরা খুব আনন্দ পায়।

মাছের এত দাম কেন, কারা বাকি মাছ তিনটি কিনেছে- জানতে চাইলে সাচ্চু মিয়া বলেন, স্যার, এমন মাছ যারা নেন তারা দাম নিয়ে ভাবেন না। তারা মাছের সাইজ দেখেই খুশি হয়ে কিনে নেন।