রাত ৪:১৪ সোমবার ২১শে জুলাই, ২০১৯ ইং

যেনেনি খাবার খাওয়ার আগে বা পরে পানি খেলে কী হয়?

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : মার্চ ১০, ২০১৯ , ২:২৬ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : নির্বাচিত,লাইফস্টাইল
পোস্টটি শেয়ার করুন

কেউ বলে, খাবার খাওয়ার আগে পানি খাওয়া ঠিক নয়; কেউ বলে খাওয়ার পরে পানি খাওয়া ঠিক নয়। কেউ বলেন, খাবার খাওয়ার অন্তত আধঘণ্টা আগে পানি খাওয়া উচিত; কেউবা বলে, খাবার খাওয়ার পর পানি খাওয়ার জন্য ঘণ্টাখানেক অপেক্ষা করা উচিত। এতসব কথার ভিড়ে কখন পানি খাবো- এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজে দিশেহারা হওয়াটাই স্বাভাবিক।

পানি কখন খাবেন?

আমরা খাবার তখনই খাই, যখন আমাদের ক্ষুধা লাগে। তেমনই পানিও তখন খাওয়া উচিত যখন আমরা তৃষ্ণার্ত হই। তবে এক্ষেত্রে আমাদের কয়েকটি বিষয়ে অবশ্যই নজর দিতে হবে।

খাবার খাওয়ার আগে পানি?

খাবার খাওয়ার আগে পানি খাওয়াটা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। খাবার খাওয়ার ঘণ্টাখানেক আগে পানি খেলে তা আমাদের হজম ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। পানি যেহেতু ঠান্ডা, তাই তা পাচ্য রসকে কাজ করতে বাঁধা দেয়। পাচ্য রসের উৎসেচনে ঘাটতি তৈরি হয়। আর এটা খাদ্য পরিপাকতন্ত্রের বিপরীত। তাই খাবার খাওয়ার ঘণ্টাখানেক আগে পানি খাওয়া ঠিক নয়।

খাবার খাওয়ার ঠিক পরে?

খাবার খাওয়ার পর আমাদের পাকস্থলীতে পরিপাকের কাজ চলে। আর পরিপাকের জন্য পরিপাক রসের দরকার। নানা রকম এনজাইম যখন এই কাজটি করে তখন যদি পাকস্থলীতে পানি যায়, তাহলে যথেষ্ট পরিমাণে এনজাইম ক্ষরণ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে খাবার হজম হতে সমস্যা হয়। তাই খাবার খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই পানি খাওয়া ঠিক নয়।

খাবার খাওয়ার সময়ে পানি খাওয়া যাবে কি?

খাবার খাওয়ার সময়ে আপনি পানি খেতে পারেন। এতে বরং উপকারই হবে। খাবার খাওয়ার সময় পানি খেলে খাবারের কণা নরম হয়ে যায়। ফলে খাবার খুব সহজেই ভেঙে যায়। আর তাই খুব সহজেই খাবার পরিপাক হয়ে যায়, হজম হতে সুবিধা হয়। আমরা যখন মশলাদার কিছু খাই তখন আমাদের আরও বেশি করে তৃষ্ণা লাগে। তখন পানি খেলে ক্ষতির ভয় নেই। পানি খেতে বলা হচ্ছে মানে এই নয় যে একসঙ্গে একগ্লাস খেয়ে নিলেন। পানি খেতে হবে সামান্য পরিমাণ, অনেকটা গলা ভেজানোর মতো।

খাবার খাওয়ার সময় বেশি পানি খেলে তাহলে পাকস্থলী পানি দিয়েই ভরে যাবে। খাবারের জন্য সেখানে আর জায়গা থাকবে না। তাই আপনার যথেষ্ট পরিমাণ খাবার খাওয়া হবে না। এটা স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক।

আপনি যদি মশলাদার খাবার খাওয়ার সঙ্গেসঙ্গে অনেক পানি খান, তাহলে সেই পানিতে তেল ভাসতে থাকে যা গ্যাস্ট্রিকের জন্য দায়ী। তাই পানি খেতে হবে পরিমিত।