দুপুর ২:৫৪ মঙ্গলবার ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন এন কাতালোনিয়ার প্রতিবাদ সভা

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : February 20, 2019 , 9:05 am
ক্যাটাগরি : প্রবাস
পোস্টটি শেয়ার করুন

বার্সেলোনায় একুশ উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক কামরুল মোহাম্মদের ওপর হামলা হওয়ার ঘটনাটি ‘মিথ্যা, গুজব ও বিভ্রান্তিমূলক’ দাবি করে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন এন কাতালোনিয়া প্রতিবাদ সভা করেছে।

১৯ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টায় স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে সংগঠনটির সভাপতি মাহারুল ইসলাম মিন্টুর সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। নেতারা দাবি করেন- মুল ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুলভাবে প্রচার করা হয়েছে। কামরুলের ওপর কোনো পরিকল্পিত হামলা করা হয়নি।

মাহারুল ইসলাম মিন্টু বলেন, ‘আমরা বা কেউ কামরুল মোহাম্মদকে আঘাত করেনি।’ তিনি দাবি করেন, কামরুল হয়তো নিজেই একদিন বুঝতে পারবেন তার ভুলটা। এ ছাড়া বক্তব্যে তিনি অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির জন্য তার পরিবারের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

এদিকে কামরুলের ওপর হামলা করা হয়নি এমন দাবির প্রেক্ষিতে তাকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে হাসপাতালে নেয়া ও ডান হাতে ব্যথা পাবার কারণ জানতে চাওয়া হয় সংগঠনের উপদেষ্টা আউয়াল ইসলামের কাছে। তিনি বলেন, ‘গত ১৮ তারিখের সভার শেষে কামরুলের সঙ্গে সংগঠনের কয়েকজনের বাকবিতণ্ডা হয়। কামরুল নিজে আগের থেকেই অসুস্থ ছিল ও তার ডান হাতে ব্যথা ছিল। বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এবং আমরা অ্যাম্বুলেন্সে ফোন করি।

তবে, একই ঘটনায় কামরুল দাবি করেন, তাকে হুমকি-ধামকি দেয়াসহ অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও লাঞ্ছিত করা হয় এবং এক পর্যায়ে গলায় ঝাঁকুনি দিয়ে ফেলে দেয়া হয়। এতে তিনি ডান হাতে ব্যথা নিয়ে অ্যাম্বুলেন্সযোগে হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেন।

ঘটনার দিন (১৮ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাতে ‘প্রবাসী বাংলাদেশি’ ব্যানারে কামরুল মোহাম্মদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সভা হয়। সেখানে কামরুল মোহাম্মদ ও তার সহধর্মিণীসহ উপস্থিত থেকে তাকে ‘আক্রমণ ও লাঞ্ছিত’ করার ঘটনার বিবরণ দেন। কামরুল মোহাম্মদের দেয়া বিবরণ এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন এন কাতালোনিয়ার পক্ষ থেকে দেয়া বক্তব্যে মিল না থাকার কারণে প্রকৃত ঘটনা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।