রাত ১২:৫১ বুধবার ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

নোয়াখালী ধর্ষণের প্রতিবাদ না করায় আক্ষেপে ফখরুল

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : February 2, 2019 , 12:15 pm
ক্যাটাগরি : রাজনীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

ভোটের রাতে নোয়াখালীতে বিএনপি সমর্থক এক নারীকে ধর্ষণের ঘটনায় দলের পক্ষ থেকে জোরাল প্রতিবাদ না আসায় আক্ষেপ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বলেছেন, ‘আসলে এই বিষয়টি নিয়ে অন্যন্ত জোরালভাবে এগিয়ে আসা উচিত ছিল।’
শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘সহিংসতা ও নারী : বর্তমান প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক আলোচনায় বক্তব্য রাখছিলেন বিএনপি নেতা। ‘আওয়াজ’ নামে একটি অরাজনৈতিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ উপলক্ষে এই আলোচনার আয়োজন করা হয়।

এই আলোচনায় ধর্ষণ, নারী নির্যাতনসহ নানা বিষয়ে বক্তব্য রাখেন বক্তারা। পরে ফখরুল অভিযোগ করেন, এসব ঘটনার পেছনে সরকার সমর্থকরা জড়িত।

এর মধ্যে নোয়াখালীতে ভোটের রাতে ধর্ষণের ঘটনাটি সামনে আনায় গণমাধ্যমকে ধন্যবাদ জানান ফখরুল। তবে এই ঘটনায় জোরাল প্রতিবাদ না হওয়ায় আক্ষেপের কথাও বলেন।

৩০ ডিসেম্বর রাতে সুবর্ণচর উপজেলায় বাড়িতে ঢুকে চার সন্তানের জননীতে ধর্ষণ করা হয় দল বেঁধে। এই ঘটনায় ভুক্তভোগীর স্বামী নয় জনকে আসামি করে মামলা করেন। এরই মধ্যে সব আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে। এজাহারে নাম না থাকলেও স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে ধরা হয়েছে নির্দেশদাতা হিসেবে।

দেশজুড়ে ঘটনাটির তীব্র প্রতিবাদ উঠে। ঘটনার ছয় দিন পর ফখরুল ও ঐক্যফ্রন্ট নেতারা হাসপাতাল ভর্তি থাকা ওই নারীকে দেখতে যান।
ফখরুল বলেন, ‘আমাদের দেশে যে নারী সংগঠনগুলো নারীদের সমস্যা নিয়ে কথা বলছেন, এই বিষয়টা নিয়ে কিন্তু তারা, একমাত্র বাম সংগঠন ছাড়া আর কেউ কিন্তু সেভাবে এগিয়ে আসতে পারেননি। এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যের।’

নিজের দলের ভূমিকাতেও খুশি নন ফখরুল। বলেন, ‘বিশেষ করে আমি বলব, আমাদের দলের ক্ষেত্রেও বিএনপির এবং মহিলা দলের ক্ষেত্রেও সেভাবে এগিয়ে আসা হয়নি। আসলে এই বিষয়টি নিয়ে অন্যন্ত জোরালভাবে এগিয়ে আসা উচিত ছিল।’

সুবর্ণচরের মতো নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের আরো যেসব ঘটনা ঘটছে তার বিচার পাওয়া যাবে না বলেও মনে করেন বিএনপি মহাসচিব। বলেন, ‘যে দেশে জনগণের কোনো নিরাপত্তা নেই। যে দেশে সংবিধানসম্মত একটি নির্বাচন করতে গিয়ে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে দখল করে নেওয়া হয়, সেখানে নারী নির্যাতনের মতো বিষয়গুলোর বিচার পাওয়া যাবে এটা মনে করার কোনো কারণ নেই।’

আলোচনা শেষে ফখরুলকে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে চা চক্র নিয়ে প্রশ্ন রাখেন সাংবাদিকরা। তবে এই প্রশ্ন করায় রাগান্বিত হয়ে ফখরুল বলেন, এই কথা কেন তোলা হচ্ছে।

‘আপনারা লেখেন সুবর্ণচরের ঘটানার কোনো বিচার হয়নি। আপনারা লেখেন, নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একটি মেয়েকে সাত জন মিলে ধর্ষণ করেছে, আপনারা লেখেন খুলনায়…।’