দুপুর ১:৪৮ শুক্রবার ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং

তাসকিন ও রেকর্ডের মাঝে ‘বাউন্ডারি কুশন’

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৯ , ৩:৩৮ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বিপিএল 2019
পোস্টটি শেয়ার করুন

শেষ ম্যাচের আগেই নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিলো গ্রুপপর্ব থেকে সিলেট সিক্সার্সের বিদায়। তবু ম্যাচটিতে বাড়তি সুযোগ ছিলো ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদের জন্য। বিপিএলের এক আসরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের রেকর্ডটি নিজের করে নিতে পারতেন তিনি।

কিন্তু এই রেকর্ড ও তাসকিনের মাঝে দেয়াল হয়ে দেখা দিয়েছে বেরসিক ‘বাউন্ডারি কুশন’। আগেই দলের বিদায় নিশ্চিত হওয়ায় তাসকিনের সামনে সুযোগ ছিলো মাত্র ৪ ওভার। নিজের এই স্পেল থেকে ২টি উইকেট নিতে পারলেই বিপিএলের এক আসরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হয়ে যেতেন তিনি।

সে পথে নিজের প্রথম ওভারেই চিটাগং ভাইকিংস ওপেনার মোহাম্মদ আশরাফুলকে সাজঘরে প্রাথমিক কাজটা সেরেছিলেন তাসকিন। দুই ওভারের প্রথম স্পেলে ১০ রান দিয়ে ১ উইকেট নিলে বোলিং থেকে সরানো হয় তাকে, রাখা হয় ডেথ ওভারের জন্য।

চলতি বিপিএলে ডেথ ওভারে তাসকিন বেশ কয়েকটি উইকেট পাওয়ায় রেকর্ডটি করা তখন সময়ের ব্যাপার মনে হচ্ছিল। কিন্তু চিটাগং ইনিংসের দশম ওভারে ঘটল বিপত্তি। মাঠ থেকেই ছিটকে যেতে হয় তাসকিনকে।

সিলেট অধিনায়ক অলক কাপালির করা সে ওভারের তৃতীয় বলে বোলারের মাথার ওপর দিয়ে ছক্কা মেরে তখন আত্মবিশ্বাস টগবগ করছেন চিটাগংয়ের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। সে সাহস থেকেই চতুর্থ বলে লং অফ বাউন্ডারিতে হাঁকান মোসাদ্দেক।

সেখানে দাঁড়ানো তাসকিন ভেবেছিলেন হয়তো বলটি থাকবে তার কাছেই। যে কারণে বলের দিকে লক্ষ্য রাখতে গিয়ে বাউন্ডারি কুশনের দিকে খেয়াল করা হয়নি তার। বল চলে যায় সোজা সীমানার ওপারে। কিন্তু কুশনে পা পিছলে পড়ে যান ২৩ বছর বয়সী এ পেসার।

খালি চোখে মনে হচ্ছিল হয়তো তেমন গুরুতর নয় ব্যাপারটি। কিন্তু তাসকিন তার গোড়ালি চেপে বসে পড়লে সঙ্গে সঙ্গে ছুটে আসেন সিলেটের ফিজিও। কিছুক্ষণ প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পরেও অবস্থা সুবিধার না দেখে তাসকিনকে মাঠের বাইরে নিয়ে যেতে হয়।

এ চোটের পর আর মাঠে ফিরতে পারেননি তাসকিন। করতে পারেনি নিজের কোটার বাকি থাকা ২ ওভার। ফলে ১২ ম্যাচ শেষে ২২ উইকেট নিয়েই শেষ হয় তাসকিনের এবারের বিপিএল। এককভাবে রেকর্ডের শীর্ষে বসতে না পারলেও, সাকিব আল হাসান এবং কেভন কুপারের সঙ্গে সম্মিলিতভাবে এক আসরে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর মুকুট মাথায় নিয়েছেন তাসকিন।

এদিকে ডানহাতি এ পেসারের ইনজুরির ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক কোনো বার্তা দিতে পারেনি সিলেট সিক্সার্স কর্তৃপক্ষ। বিসিবির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে শনিবার ভালোভাবে পর্যবেক্ষণের পরই চূড়ান্ত কিছু বলা যাবে তার ব্যাপারে। তবে তাসকিন আহমেদের বাবা আবদুর রশিদ নিশ্চিত করেছেন কোনো চিড় ধরা পড়েনি তাসকিনের পায়ে।

বিপিএলের এক আসরে সর্বোচ্চ উইকেটের রেকর্ড

১. কেভন কুপার (বরিশাল বুলস) – ৯ ম্যাচে ২২ উইকেট, সেরা বোলিং ১৫ রানে ৫ উইকেট (২০১৫)
২. তাসকিন আহমেদ (সিলেট সিক্সার্স) – ১২ ম্যাচে ২২ উইকেট, সেরা বোলিং ২৮ রানে ৪ উইকেট (২০১৯)
৩. সাকিব আল হাসান (ঢাকা ডায়নামাইটস) – ১৩ ম্যাচে ২২ উইকেট, সেরা বোলিং ১৬ রানে ৫ উইকেট
৪. আবু হায়দার রনি (কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস) – ১২ ম্যাচে ২১ উইকেট, সেরা বোলিং ১৯ রানে ৪ উইকেট (২০১৫)
৫. ডোয়াইন ব্রাভো (ঢাকা ডায়নামাইটস) – ১৩ ম্যাচে ২১ উইকেট, সেরা বোলিং ১০ রানে ৩ উইকেট (২০১৬)