রাত ১:১২ মঙ্গলবার ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

২০০ রান করতে পারল না খুলনা টাইটান্স

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : January 18, 2019 , 3:08 pm
ক্যাটাগরি : বিপিএল 2019
পোস্টটি শেয়ার করুন

১৫ ওভার শেষে স্কোরবোর্ডে ১৪৫ রান সংগ্রহ করে ব্যাট করছিল খুলনা টাইটান্স। দুই সেট ব্যাটসম্যান ডেভিড মালান ও জুনায়েদ সিদ্দিকীসহ শেষ মুহুর্তে ব্রাথওটের ফিনিশিংয়ে ২০০ রান ছাড়িয়ে যাওয়ার কথা দলের। কিন্তু শেষ তিন ওভারে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় তেমনটা আর হলো না।

২০ ওভার শেষে খুলনার ইনিংস থামলো ১৮১ রানে। সর্বোচ্চ ৭০ রান এসেছে জুনায়েদ সিদ্দিকীর ব্যাট থেকে। জয়ের জন্য কুমিল্লার চােই ২০ ওভারে ১৮২ রান।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে শুক্রবার সন্ধ্যার খেলায় মুখোমুখি হয়েছে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবং খুলনা টাইটান্স। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাত টায় শুরু হয়েছে ম্যাচটি।

ওপেন করতে নামা জহুরুল ইসলামকে ম্যাচের চতুর্থ বলে খালি হাতে ফিরিয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। থার্ড ম্যান অঞ্চলে জিয়াউর রহমানকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন জহুরুল।

প্রথম ওভারে উইকেট পড়লেও দ্বিতীয় ওভার থেকে দারুণ নিয়ন্ত্রণ নিয়ে খেলেছেন জুনায়েদ সিদ্দিকি এবং আল আমিন। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে পাওয়ার প্লে’তে দলীয় সংগ্রহ এক উইকেটে ৬৫ রানে নিয়ে যান দুই জন।

দুর্দান্ত ব্যাটিং করতে থাকা আল আমিনকে নিজের প্রথম বলেই থামিয়েছেন শহীদ আফ্রিদি। বোল্ড হয়ে ফিরে যাওয়ার আগে আল আমিন করেন ১৯ বলে চারটি চার ও একটি ছক্কায় ৩২ রান। আল আমিন- জুনায়েদ জুটির ব্যাট থেকে আসে ৭১ রান।

এরপর দূর্দান্ত এক ফিফটি তুলে নেন জুনায়েদ সিদ্দিকী। ৩১ বলে তিন ছক্কায় নিজের ফিফটি তুলে নেন তিনি। ফিফটির পরই ‘সেজদায়’ লুটিয়ে পড়ে হাফসেঞ্চুরি উদযাপন করেন তিনি।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স একাদশঃ এনামুল হক (উইকেটরক্ষক), তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস (অধিনায়ক), থিসারা পেরেরা, শামসুর রহমান, শহীদ আফ্রিদি, লিয়াম ডসন, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, মেহেদী হাসান, জিয়াউর রহমান।

খুলনা টাইটান্স একাদশঃ মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আরিফুল হক, নাজমুল হোসেন শান্ত, তাইজুল ইসলাম, জুনায়েদ সিদ্দিকি, লাসিথ মালিঙ্গা, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, জুনায়েদ খান, জহুরুল ইসলাম (উইকেটরক্ষক), ডেভিড মালান, আল আমিন।