রাত ১২:১১ বুধবার ২৩শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং

বাদ পড়া হেভিওয়েটদের প্রতিক্রিয়া

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : জানুয়ারি ৭, ২০১৯ , ৭:০৪ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজনীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

এবার মন্ত্রিসভায় বাদ পড়েছেন আওয়ামী লীগের সব হেভিওয়েট মন্ত্রীরা। এদের মধ্যে অন্যতম হলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবং কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী।

তোফায়েল আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন যে, আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করি। জীবনের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত আদর্শচ্যুতি করিনি। এটাই হলো আমার জীবনের সবেচেয়ে বড় অর্জন। মন্ত্রী-এমপি হওয়া আমার জন্য কোনো বড় বিষয় না। বঙ্গবন্ধুর সান্নিধ্য পেয়েছি, বঙ্গবন্ধুর স্নেহ পেয়েছি এবং বঙ্গবন্ধুর অবর্তমানে তাঁর আদর্শ ধরে রাখতে পেরেছি। এটাই আমার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওয়া। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিশ্চয়ই তাঁর নিজের বিবেচনাবোধ থেকে এই মন্ত্রিসভা বিন্যাস করেছেন এবং মন্ত্রিসভা গঠনটা একান্তই প্রধানমন্ত্রীর এখতিয়ার। তিনি যেভাবে সুবিধা বিবেচনা করেছেন, যেভাবে সরকার পরিচালনা কার্যক্রম সুবিধাজনক হবে সেভাবে মন্ত্রিসভা সাজিয়েছেন তিনি। বাদ পড়া নিয়ে তাঁর মধ্যে কোনো দুঃখবোধ নেই বলে তিনি জানিয়েছেন।

যোগাযোগ করা হলে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ১০ বছর শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিশ্চয়ই মনে করেছেন যে, এখন এখানে নতুন চিন্তা দরকার, নতুন প্ল্যান সঞ্চালন করা দরকার। সেজন্য তিনি করেছেন। আমি আমার দায়িত্ব যথাযথ নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করার চেষ্টা করেছি। প্রধানমন্ত্রী যাকে যোগ্য মনে করেছেন তাকে মন্ত্রণালয় দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন যে, আমি ১০ বছর এই দায়িত্ব পালন করে অনেক ক্লান্ত। এখন হয়তো একটু অবসর নেবো।

কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগ এবং ভবিষ্যতের বাংলাদেশের দিকে তাকিয়ে মন্ত্রিসভা গঠন করেছেন। কাজেই আমরা যারা প্রৌঢ় এবং প্রবীণ হয়ে গেছি তাদেরকে মন্ত্রিসভায় না রেখে তিনি বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়েছেন। আমি আশা করি, যে নতুন মন্ত্রিসভা আজ গঠিত হচ্ছে সেটা সফলভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারবে।