সন্ধ্যা ৬:৪৮ বুধবার ২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

সুবর্ণচরের পথে ঐক্যফ্রন্টের নেতারা

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : জানুয়ারি ৫, ২০১৯ , ৫:৪৩ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : রাজনীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে গণধর্ষণের শিকার নারী ও তার পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে নোয়াখালীর উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।

শনিবার সকাল সাড়ে ৭টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে সড়ক পথে তারা রওনা হন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে এই সফরে রয়েছেন- নোয়াখালীর ওই আসনের বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য দলের ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, কৃষক, শ্রমিক, জনতা লীগের সভাপতি আব্দুল কাদের সিদ্দিকী, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকন, হারুনুর রশীদ, প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, স্বনির্ভর বিষয়ক সম্পাদক শিরিন সুলতানা, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক কামরুজ্জামান রতন, কেন্দ্রীয় নেতা রেহানা আখতার রানু, সৈয়দ আসিফা আশরাফী পাপিয়া।

মোহাম্মদ শাহজাহান জাগো নিউজকে বলেন, নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই নারীর খোঁজ-খবর নেয়ার পর জেলার আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময় করে বিকেলেই ঢাকা ফিরবেন সবাই।

প্রসঙ্গত, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় ভোট দিতে ভোট কেন্দ্রে গেলে নৌকার কয়েকজন সমর্থকের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় এক নারীর। ওই নারী ধানের শীষে ভোট দিতে চাওয়াকে কেন্দ্র করে তার সূত্রপাত। এ সময় নৌকার সমর্থকরা তাকে ‘তোর কপালে শনি আছে’ বলে হুমকি দেন। পরে তিনি কেন্দ্র থেকে দ্রুত বের হয়ে বাড়ি ফিরে যান। ওই রাতেই একই এলাকার ১০-১২ জন তাদের বাড়িতে এসে প্রথমে ভাঙচুর চালায়। এক পর্যায়ে তারা ঘরে ঢুকে ওই নারীর স্বামীকে পিটিয়ে আহত করে। পরে স্বামী ও স্কুলপড়ুয়া মেয়েকে (১২) বেঁধে রেখে তারা ওই নারীকে টেনে-হিঁচড়ে ঘরের বাইরে নিয়ে পিটিয়ে আহত করে এবং গণধর্ষণ করে। একপর্যায়ে তারা তাকে গলা কেটে হত্যার করতে উদ্যত হয়। এ সময় তিনি প্রাণ ভিক্ষা চাইলে তারা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় বাড়ির উঠান সংলগ্ন পুকুর ঘাটে ফেলে চলে যায়।

এ ঘটনায় ওই নারীর স্বামী বাদী হয়ে ৯ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন।