দুপুর ২:১৪ শুক্রবার ১৯শে জুলাই, ২০১৯ ইং

যৌতুক মামলায় এএসআই মাজহারুল কারাগারে

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : জানুয়ারি ৩, ২০১৯ , ৩:৩৭ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : অপরাধ ও দুর্নীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

নেত্রকোনায় স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় মাজহারুল ইসলাম (৩৫) নামে এক পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শককে (এএসআই) কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নেত্রকোনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠান।

এএসআই মাজহারুল ইসলামের বাড়ি মদন উপজেলার শিবাশ্রম গ্রামে। তিনি বর্তমানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে কর্মরত। তার স্ত্রীর নাম নিলুফার ইয়াসমিন ওরফে লাকী (২৪)।

স্থানীয় বাসিন্দা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, মদনের শিবাশ্রম গ্রামের মৃত আবদুল হেকিমের ছেলে মাজহারুল ইসলামের সঙ্গে ২০১৩ সালের ২২ জুন নেত্রকোনা পৌর শহরের কাটলি এলাকার বাসিন্দা আবদুল ওয়াদুদের মেয়ে নিলুফার ইয়াসমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই মাজহারুল ইসলাম তার স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক এনে দেয়ার জন্য নানাভাবে চাপ দেন। এরপর নিলুফার তার বাবার কাছ থেকে এক লাখ টাকা এনে দেন। পরে মোটরসাইকেল কেনার কথা বলে আরও টাকা দেয়ার জন্য চাপ দেন।

গত ২০১৭ সালের ৩ মে নিলুফার ইয়াসমিনকে ৩ লাখ টাকা এনে দেয়ার জন্য বলেন। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় মাজহারুল নিলুফাকে বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন চালান। এতে মাজহারুলের বড় ভাই ও তার মা নানাভাবে প্ররোচনা দেন। এ ঘটনায় ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর নিলুফার ইয়াসমিন বাদী হয়ে স্বামী মাজহারুল ইসলাম, শাশুড়ি হোসনা আক্তার ও ভাসুর আজহারুল ইসলামের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। ওই মামলায় মাজহারুল ইসলাম বৃহস্পতিবার হাজিরা দিতে গেলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠান।

নেত্রকোনার কোর্ট পরিদর্শক গোলক চন্দ্র বসাক নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় মাজহারুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।