রাত ১:১২ শুক্রবার ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

বরিশালের তিন ‘মল সন্ত্রাসী’ গ্রেপ্তার

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : May 14, 2018 , 12:49 pm
ক্যাটাগরি : দেশজুড়ে,বরিশাল
পোস্টটি শেয়ার করুন

বরিশালের বাকেরগঞ্জে মাদ্রাসা সুপারকে লাঞ্ছিত করে তার মাথায় মল ঢেলে দেয়ার ঘটনায় তিন জনকে আটক করেছে পুলিশ। পরে তাদেরকে কারাগারে পাঠিয়েছেন বিচারক।

আটকরা হলেন: মিরাজ হোসেন সোহাগ, মিনজু হালদার এবং বেলাল হোসেন।

সোমবার দুপুরে তিনজনকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরিশাল জেলার পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম। বলেন, পুরো ঘটনায় ১০ থেকে ১২ জন জড়িত। এদের বাইরে কলকাঠি নাড়িয়েছেন আরও কয়েকজন।

পুলিশ সুপার জানান, বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১২ নং রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের কাঠালিয়া গ্রামের মিনজু ৪৫) ও বাকেরগঞ্জ পৌর এলাকার বেলাল (২৫) কে আটক করা হয়। পরে আটক করা হয় মিরাজকে।

তদন্তে সব বেরিয়ে আসছে জানিয়ে সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘আটকদের আদালতে সোপার্দ করে রিমান্ড চাওয়া হবে। আর বাকিদেরও খুবই অল্প সময়ের মধ্যে আটক করে আইনের
আওতায় আনা হবে।’

তবে বিকালে বরিশালের একটি আদালতে তোলা হলে তিন জনের রিমান্ড আবেদন নাকচ করে তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।
এই ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার পর তীব্র সমালোচনার ঝড় উঠেছে সামাজিক মাধ্যমে। বরিশালও এর ব্যতিক্রম নয়। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা দেয়ার দাবি উঠেছে সামাজিক মাধ্যমসহ সর্বত্র।

পুলিশ সুপার বলছেন, ‘মাদ্রাসা সুপারের মাথায় ও শরীরে মানুষের মল ঢেলে দিয়ে লাঞ্চনার এ ঘটনা খুবই দুঃখজনক।’

‘খবরটি জানতে পারার পর থেকেই ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ও মামলায় অভিযুক্ত সকলকে আটকে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।’

‘যে ভিডিওটি ফেইসবুকে প্রকাশ হয়েছে, সেই ভিডিও চিত্রের বাহিরেও অনেকে এ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত। তাদের বিষয়ে আমরা তথ্য পাচ্ছি, কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।’

ভুক্তভোগী মাদ্রাসা শিক্ষক ও তার পরিবার বিষয়টি লোকলজ্জায় গোপন রাখতে চেয়েছিলে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। বলেন, ‘ভিডিও করে ওই শিক্ষককে লজ্জায় ফেলতে চেয়েছিল অপরাধীরা। কিন্তু এটাই তাদের জন্য কাল হয়েছে। ভিডিওটা না হলে হয়তো লাঞ্ছনা করার ঘটনা হয়তো তেমন কেউ জানতে পারতো না। কিন্তু এখন সব প্রমাণ আমরা পেয়ে গেছি।’
মাদ্রাসা সুপারের ওপর ‘মল সন্ত্রাস’ চালানোর ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নে।

ভুক্তভোগী আবু হানিফ কাঁঠালিয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক। তিনি জানান,

শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে তিনি হাঁটতে বের হয়েছিলেন। তখন জাহাঙ্গীর মৃধা ও মাসুম সরদারের নেতৃত্বে অনেকে মিলে তাকে রাস্তায় আটকে লাঞ্ছিত করে। সামাজিকভাবে আমাকে অসম্মানিত করার জন্য তারা তার মাথায় মল ঢেলে দেয়।

ফেসবুকে ছড়িয়ে পরা ভিডিওতে দেখা গেছে, আবু হানিফ রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন। কয়েকজন তার পথ রোধ করে। এরপর একজন তার মাথার টুপি ও কাঁধের রুমাল খুলে নেয়। তখন আবু হানিফ তার মোবাইল ফোন বের করলে একজন এসে ফোনটি কেড়ে নেয়। অন্য আরেকজন তার হাত চেপে ধরে রাখে। তারপর পলিথিনে পেঁচানো একটা হাঁড়ি বের করে সেখান থেকে মলমূত্র ঢেলে দেয় হানিফের মাথায়।

এসময় তাকে হুমকি দিয়ে বলা হয়- ‘এইয়া নিয়া যদি বাড়াবাড়ি করো তাহলে তোর জীবন শেষ হইয়া যাইবে’। এরপর তাকে গালাগালি করে স্থান ত্যাগ করতে বলা হয়।

এই ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষক আট জনকে আসামি করে মামলা করার পর পুলিশ প্রথমে মিনজু হালদার নামে একজনকে আটক করে।