দুপুর ২:১৩ মঙ্গলবার ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

অভিনয়ের নামে অভিনব প্রতারণা!

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : August 29, 2018 , 2:28 pm
ক্যাটাগরি : গনমাধ্যম
পোস্টটি শেয়ার করুন

হংকংয়ের ২১ বছর বয়সী এক তরুণী দাবি করেছেন, বিয়ের অভিনয়ের নামে ফাঁদে ফেলে সম্পূর্ণ আগন্তুক এক পুরুষকে বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়েছে তাকে।

শিক্ষানবিশ মেকআপ আর্টিস্ট নিয়োগের একটি ফেসবুক বিজ্ঞাপণ দেখে তিনি পদটির জন্য আবেদন করেন। পরে তাকে প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবে একটি পাতানো বিয়ের কনে সাজার জন্য বলা হয়।

কিন্তু ‘পাতানো বিয়েতে‘ অংশ নেওয়ার পর জানতে পারেন তিনি এবং সংশ্লিষ্ট পুরুষ ব্যক্তিটি যে কাগজে স্বাক্ষর করেছেন, সেটি সত্যিকার বিয়ের দলিল!

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের খবরে এসব জানানো হয়েছে। তবে ঘটনার শিকার তরুণীর নাম প্রকাশ করা হয়নি।

পাতানো ওই বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে বাসায় ফিরে আসার পর ওই তরুণী বুঝতে পারেন, তিনি সত্যিকার বিয়ের দলিলে স্বাক্ষর করেছেন এবং তিনি এখন বিবাহিত। সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুলিশের দারস্থ হন। কিন্তু এ ঘটনায় আদৌ আইনের কোনো ব্যত্যয় হয়েছে কিনা, পুলিশ সেটি ‍বুঝতে পারছে না, কারণ বিয়ের দলিলপত্রে পুলিশ নকল কিছু খুঁজে পায়নি। পরে বাধ্য হয়ে ওই তরুণী হংকং ফেডারেশন অব ট্রেড ইউনিয়নের (এফটিইউ) দ্বারস্থ হয়েছেন।

এফটিইউর রাইটস অ্যান্ড বেনিফিটস কমিটির পরিচালক টং কামগিউ বিবিসিকে বলেন, ‘এটি একটু নতুন ফাঁদ। আধুনিক হংকংয়েও এসব হচ্ছে দেখে আমি হতাশ এবং এটি অবিশ্বাস্য।’

মেকআপ আর্টিস্ট হিসেবে আবেদন করলেও ওই কোম্পানি থেকে তাকে ওয়েডিং প্ল্যানার পদে কাজ করার জন্য রাজি করানো হয়। হংকংয়ে তাকে এক সপ্তাহের প্রশিক্ষণ দেওয়ার পর বলা হয় চূড়ান্ত পরীক্ষায় পাস করার জন্য তাকে চীনের ফুঝো প্রদেশে একটি পাতানো বিয়েতে কনের অভিনয় করতে হবে।

জুলাই মাসে স্থানীয় সরকারের অফিসে তিনি একটি বিয়ের দলিলে স্বাক্ষর করেন। কিন্তু হংকংয়ে ফিরে আসার পর তার এক বান্ধবী তাকে এ ফাঁদের কথা জানায়। ওই বান্ধী তাকে বলে, আইনত সে এখন বিবাহিত এবং ডিভোর্সের জন্য তাকে আইনগতভাবে আবেদন করতে হবে।

কিন্তু এই তরুণী যাকে বিয়ে করেছেন, সেই পুরুষটির পরিচয় জানা যায়নি।

টং বলেন, ‘২১ বছর বয়সী ওই তরুণী কিছু জানতো না। প্রতারকরা এই সুযোগটিই নিয়েছে। যেভাবেই হোক তার এখন বিয়ের দলিল আছে এবং এটি তার মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে।’

হংকংয়ের পুলিশ প্রতি বছর গড়ে এক হাজার আন্তসীমান্ত বিয়ের ফাঁদ চিহ্নিত করে। চীনা কোনো নাগরিক হংকংয়ের কাউকে বিয়ে করলে হংকংয়ে অভিবাসনের আবেদন করতে পারে।