রাত ১০:৪৯ বুধবার ২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

এসআইয়ের বিরুদ্ধে ওসির স্ত্রীকে যৌন হেনস্থার অভিযোগ!

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : August 21, 2018 , 9:35 am
ক্যাটাগরি : অপরাধ ও দুর্নীতি
পোস্টটি শেয়ার করুন

পুলিশের এক উপ-পরিদর্শকের বিরুদ্ধে থানার ওসির স্ত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাজশাহী মহানগরীতে সোমবার সন্ধ্যায় এই ঘটনা ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত এসআই এর নাম মাসুদ রানা। তিনি বোয়ালিয়া থানায় কর্মরত।

সোমবার রাজশাহীর আরডিএ মার্কেটে এই কসমেটিকের দোকানে কেনাকাটা করছিলেন ওসির স্ত্রী। এসময় এসআই মাসুদ রানা তার গায়ের কাছ ঘেঁষে তাকে বিরক্ত করতে থাকেন। ওই নারী প্রতিবাদ করে বলেন, ‘আপনি বার বার আমার শরীর ঘেঁষে দাঁড়াচ্ছেন কেন? আমাকে বিরক্ত করছেন কেন?

জবাবে এসআই মাসুদ রানা বলেন, ‘এটা কি আপনার জায়গা নাকি? একপর্যায়ে ওই নারী তাকে বলেন, ‘আমাকে চেনেন, আমি কে? জবাবে এসআই মাসুদ রানা বলেন, ‘আমি পুলিশ আমার শরীরে লেখা আছে। আপনার শরীরে তো লেখা নাই।

ভুক্তভোগী নারী জেলা পুলিশের একটি থানার ওসির স্ত্রী। ওই নারীর দাবি, এসআই মাসুদ রানা তার সঙ্গে অশালীন আচরণ করেছেন। এ নিয়ে তার পুলিশ কর্মকর্তা স্বামী বোয়ালিয়া থানার ওসির কাছে অভিযোগ করেছেন।

এরপর ওই নারী তার স্বামীর পরিচয় প্রকাশ করেন। সাথে সাথেই সেখান থেকে চলে যান মাসুদ রানা।

মাসুদ রানা বলেন, ‘কিছুটা সঠিক আছে, বিষয়টা নিয়ে আমি লজ্জিত, ব্যথিত। বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছি। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা আমাকে বকাঝকা করছেন। কিন্তু আমার ওই ধরনের মেন্টালিটি নাই। আমার স্ত্রী একটা ক্লিপ চেয়েছিল। তার আবদার পূরণ করতে চালককে গাড়িটা মার্কেটের সামনে দাঁড় করাতে বলি। তারপর মার্কেটে যাই। এর মধ্যেই এমন অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে গেছে।’

ভুক্তভোগী নারীর পুলিশ কর্মকর্তা স্বামী বলেন, আমার স্ত্রী ঘটনাটি আমাকে জানানোর পর আমি সংশ্লিষ্ট থানার ওসিকে অবহিত করি। তবে আমি লিখিত কোনো অভিযোগ করব না। কারণ, আমিও পুলিশে চাকরি করি। এসব ঝামেলায় জড়াতে ভালো লাগে না।’

বোয়ালিয়া থানার ওসি আমান উল্লাহ বলেন, ভুক্তভোগী নারীর স্বামীর কাছ থেকে ঘটনাটি শুনে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানিয়েছেন।