সকাল ১১:০২ বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

বাংলাদেশী প্রবাসীকে ফাঁসির আদেশ দিলো মালয়েশিয়ার আদালত?

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : August 15, 2018 , 5:35 pm
ক্যাটাগরি : আর্ন্তজাতিক
পোস্টটি শেয়ার করুন

জীবনের তাগিদে দেশ থেকে বিদেশে পাড়ি জমান প্রবাসী ভাইয়েরা। সেখানে গিয়ে নানা ধরনের কাজ করে থাকেন প্রবাসীরা । আবার অনেকে পরিবার নিয়ে বিদেশে থাকেন । এমনি মালয়েশিয়ায় স্ত্রীকে নিয়ে শান্তিতে বসবাস করছিলেন বাংলাদেশের এক যুবক। তবে সেই স্ত্রীকে হত্যা করার দায়ে মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে দেশটির আদালত ৷

তার বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয় যে,মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত এই বাংলাদেশি তার স্ত্রীকে নৃশংসভাবে হত্যা করে। পরে লাশকে টুকরো টুকরো করে দুটি লাগেজে ভরে একটি ডোবায় ফেলে দিয়েছিল ৷

মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) শাহজাদা সাজু (৩৭) নামের বাংলাদেশির বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় দোষী সাবস্ত করে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেয় দেশটির ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট।

অভিযোগে বলা হয়, গত ৩ জুলাই সকাল ৪.১৫ মিনিট থেকে ৫ জুলাই ৩.১৬ মিনিটের মধ্যে কোন এক সময় তার স্ত্রী সাজেদা-ই বুলবুল কে হত্যা করা হয়। পরে লাশটিকে ছয় টুকরো করে দুইটি লাগেজে ভরে নদীর পাশে ফেলে দেয় ।

হত্যাকাণ্ডের পর থেকে সাজু পালিয়ে মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরের সীমান্তবর্তী এলাকা জোহর বারু নির্জন এক রুমে আশ্রয় নেয় । মোবাইল ট্রাকিং এর মাধ্যমে সাজুকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় মালয়েশিয়া গোয়েন্দা পুলিশ ।

এ হত্যা কান্ডের ঘটনার বিবরণিতে বলা হয়, গত ৫ জুলাই বৃহস্পতিবার পুত্রা ওয়াল্ড ট্রেট সেন্টার এর কাছের নদীর তীরে লাগেজ দেখতে পাই স্থানীয়রা ৷ স্থানীয় দের তথ্যের বৃত্তিতে পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে প্রথম লাগেজের ১০০ মিটার দূর থেকে অপর লাশ ভর্তি লাগেজটি উদ্ধার করে ৷ এ সময় প্রথম লাগিজে হাত,পা ও মাথা এবং অপরটিতে শরীরের বাকি অংশ দেখতে পায় পুলিশ ৷

উদ্ধারকৃত লাশের সঙ্গে গলায় একটি রকেটে আল্লাহু লেখা পাওয়া যায়।

টানা ২৫ দিনের মাথায় দেশটির সীমান্তবর্তী প্রদেশ জহুর বারু থেকে ২৫ই জুলাই বুধবার ভোরে ঘাতক সাহজাদা সাজুকে গ্রেফতার করা হয়।

মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশি নারী আইনজীবীকে নৃশংসভাবে খুনের ঘটনা নিয়ে গোটা কুয়ালালামপুরে বাঙ্গালী কমিউনিটির মধ্যে চলছিল আলোচনা। আবার কেউ কেউ আতংকের মধ্যেও ছিলেন। সাজেদা-ই-বুলবুল (২৯) নামের ওই আইনজীবীকে হত্যার ঘটনায় ২০ জুলাই দেশটির পুলিশ প্রধান সন্দেহভাজন স্বামী শাহজাদা সাজুকে (৩৭) খুঁজে বের করতে সাজুর ছবি প্রকাশ করেছিলেন।

এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় ১৭ জুলাই কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ হাই কমিশনের সহযোগিতা চেয়ে লিখিত আবেদন করেছিলেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (আইও) সিআইডির এএসপি ফাইজাল বিন আব্দুল্লাহ।

জানা যায়, সাজেদা-ই-বুলবুল পটুয়াখালী সদরের পুরাতন আদালতপাড়ায় মো. আনিস হাওলাদারের মেয়ে। তিনি প্রাইম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এল এল বি এবং এল এম পাশ করেন। বিয়ের পর ২০১৬ সালের ৩ ডিসেম্বর স্বামীর সঙ্গে মালেয়েশিয়া যান তিনি।

সেখানে যাওয়ার পর স্বামীর অন্য চেহারা দেখতে পান। শাহজাদা নিজে প্রতিষ্ঠিত হলেও স্ত্রীকে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ তৈরি করে দেননি। নিয়মিত করতেন নির্যাতন।

তারই ধারাবাহিকতায় গত ৫ জুলাই সাজেদাকে নৃশংস কায়দায় হত্যা করে পাষন্ড স্বামী শাহজাদা। অপরাধ গোপন করতে স্ত্রীর লাশ টুকরো টুকরো করে কেটে লাগেজে ভরে সুংগাই কালাং (জালান ইপুহ) এলাকায় এক ডোবায় ফেলে দিয়ে গা ঢাকা দেন তিনি।পাপ কাউকেই ছাড়ে না অবশ্য তারি এক নজির।