ভোর ৫:১৮ মঙ্গলবার ২১শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

যৌতুক নামের কালো গ্রাস ভালোবাসার সংসার তেতো করে দিল…

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : আগস্ট ৯, ২০১৮ , ৬:৫৭ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : দেশজুড়ে,সিলেট
পোস্টটি শেয়ার করুন

সিলেটের গোয়াইনঘাট থানাধীন এলাকা গোরাগ্রামের মৃত মিজানুর রহমানের মেয়ে রেশমা আক্তার (২২) কে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে স্বামীর পরিবারের উপর। একই গ্রামের আকবর আলীর পূত্র আমিনুল হক এর সাথে আনুমানিক ৯ মাস আগে উভয় পরিবারের সম্মতিতে তাদের বিয়ে হয়।

মেয়ের পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর মাস খানেক সময় ভালো কাটলেও পরবর্তীতে শুরু হয় রেশমার সংসার জীবনে অশান্তি। এই অশান্তির মূল কারণ যৌতুক। রেশমার স্বামী তাকে প্রতিনিয়ত বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য বলতো। রেশমা টাকা আনতে অক্ষম হলেই শুরু হত অমানবিক অত্যাচার। অবশেষে মেয়ের অশান্তি সহ্য করতে না পেরে রেশমার স্বামী হারা মা তারা মেয়ে জামাইকে অনেক কষ্ট করে ৫০ হাজার টাকা দিতে বাধ্য হয়। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই রেশমার উপর পুনরায় নির্যাতন শুরু হয়।

তার শশুর বাড়ির লোকেরা আরও মোটা অংকের টাকা দাবি করে,যা রেশমার মায়ের পক্ষে দেওয়া কোনভাবেই সম্ভব না।কিন্তু রেশমার স্বামীর করা হুশিয়ারী, টাকা এনে দিতে না পারলে সংসার হবে না।

তবুও কাজ না হওয়ায় গত সোমবার (৬ আগষ্ট) সকাল আনুমানিক ৯ ঘটিকার দিকে রেশমার স্বামী আমিনুল হক তাকে বেধরম মারধর শুরু করে। তাকে মারতে মারতে জখম করে। সে চোখে আঘাত পেয়েছে। একপর্যায়ে রেশমার চিৎকার শুনে কয়েকজন প্রতিবেশী ছুটে আসে। পরে তাকে উদ্ধার করে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেলে ভর্তি করে।

বর্তমানে রেশমা ওই হাসপাতালের ৪ তলার ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছে। এবিষয়ে রেশমার পরিবারের পক্ষে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।