সকাল ১১:৫৪ বৃহস্পতিবার ২৫শে এপ্রিল, ২০১৯ ইং

বিপুল ভোটে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন রাজশাহীর খায়রুজ্জামান লিটন ‘’

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : জুলাই ৩০, ২০১৮ , ৬:১২ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : দেশজুড়ে,রাজশাহী
পোস্টটি শেয়ার করুন

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

রাজশাহীতে ১৩৮ কেন্দ্রের মধ্যে সব কেন্দ্রের ফলাফলে সবশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন পেয়েছেন ১ লাখ ৬৬ হাজার ৩৮৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল পান ৭৮ হাজার ৪৯২ ভোট।

জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এ এইচ এম কামারুজ্জামানের সন্তান লিটন ২০১৩ সালের সিটি নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের কাছে পরাজিত হন। এর আগে ২০০৮ সালের সিটি নির্বাচনে জয়লাভ করে নগরীর ব্যাপক উন্নয়ন করেন। ২০০৮ সাল থেকে ২০১৩ সাল। এ সময়কালে তিনি বদলে ফেলেন রাজশাহী নগরের চিত্র।

পাঁচ বছরে লিটন রাজশাহী নগরকে একটি ঝকঝকে ক্লিন সিটিতে রুপান্তর করেন। । দৃশ্যপট বদলে ফেলেন পদ্মাপাড়েরও। নির্মাণ করেন লালন শাহ মঞ্চ। বদলে যায় সাহেববাজার বড় মসজিদের চিত্র। বিনোদনের জন্য নতুন রুপ পায় রাজশাহী শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চিড়িয়াখানা ও উদ্যান।

২০০৮ সালে দায়িত্ব নেয়ার পর তিনি শহরে বড় বড় রাস্তা, দৃষ্টিনন্দন আইল্যান্ড, ড্রেন, কালভার্ট এবং ফুটপাত। নির্মাণ করেন বর্জ্র ফেলার নির্দিষ্ঠ স্থান। বিশুদ্ধ পানি সমস্যা সমাধানে প্রতিষ্ঠা করেন ওয়াসা। নগরে প্রতিষ্ঠা করেন শিশু হাসপাতাল। পাঁচ বছরের তিনি সাড়ে ৮০০ কোটি টাকা সরকারি বরাদ্দ নিয়ে এসব উন্নয়ন কাজ করেন।

এছাড়াও রাজশাহীতে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, হাইটেক পার্ক, বিকেএসপি এবং অর্থনৈতিক জোনেরও পরিকল্পনা করেছিলেন খায়রুজ্জামান লিটন। সেগুলো এখন বাস্তবায়নাধীন। তাই এবারের নির্বাচনে স্থান পেয়েছিল ‘চলো আবারো বদলে দেই রাজশাহী’। এই স্লোগাকে সামনে রেখে ভোটের মাঠে প্রচার প্রচারণা চালান আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। তাদের প্রচারণার সঙ্গে যুক্ত হয়েছিল সাধারণ ভোটাররাও।