বিকাল ৪:৪১ শনিবার ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ব্রেকিং নিউজ:

কুমিল্লা দেবিদ্বারে ৫০ টাকার লোভ দেখিয়ে ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ। | কুমিল্লা সদরে ডিবি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র ও ৫ শত পিছ ইয়াবাসহ এক এক যুবক। | সিলেট চেম্বারের পরিচালনা পরিষদের ২০১৯-২০২১ সাল মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত | কুমিল্লা সদর দক্ষিণে যাত্রীবাহি বাসচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত। | মাধবপুরে দুই কেজি গাঁজা সহ ২ মাদক পাচারকারী আটক | ছেলের জন্য সকলের কাছে দোয়া চাইলেন ক্রিকেটার রুবেল | পুত্র সন্তানের বাবা হলেন রুবেল, মা-ছেলে দুজনেই সুস্থ আছেন | মাদক চোরাকারবারীদের ফাঁদে পরে, বিলিনের পথে মাধবপুরের চা শিল্প! | কুমিল্লা সদরে ট্রেনে কাটা পড়ে দুই ষ্কুল শিক্ষার্থী নিহত। আহত-৩ | কুমিল্লায় গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে ৫ হাজার পিছ ইয়াবাসহ সাংবাদিক শামীম আটক। |

আরো ক্রিকেটার তুলে আনার পরামর্শ হ্যালসলের

নিউজ ডেস্ক | জাগো প্রতিদিন .কম
আপডেট : April 30, 2018 , 12:19 pm
ক্যাটাগরি : খেলাধুলা
পোস্টটি শেয়ার করুন

গত বছর থেকেই বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রায় সব জয়ই আসছে অভিজ্ঞ খেলোয়াড়দের হাত ধরে। তরুণরা সে অর্থে বলার মতো কিছুই করতে পারছেন না। কিন্তু দলকে ধারাবাহিকভাবে ম্যাচ জিততে হলে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের পাশাপাশি তরুণদেরও অবদান রাখতে হবে বলে মনে করেন বাংলাদেশ দলের সাবেক সহকারী কোচ রিচার্ড হ্যালসল। তাই তরুণ ক্রিকেটারদের সেরা সামর্থ্যটা বের করে আনার কথাই বললেন এ জিম্বাবুইয়ান।

বাংলাদেশ জাতীয় দলকে বিদায় জানিয়েছেন গত মাসেই। তবে তা ছিল মেইল বার্তায়। প্রায় দেড় মাস পর সোমবার সশরীরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে (বিসিবি) আসলেন হ্যালসল। সোমবার বিসিবির সাথে বাকি থাকা আর্থিক লেনদেন নিয়ে কথা বলেছেন। সাথে বিসিবিকে ধন্যবাদ জানিয়ে মিডিয়ার কাছে বাংলাদেশ দলের জন্য কিছু পরামর্শও দিলেন এ কোচ, ‘এই দলে ভালো এক ঝাঁক সিনিয়র ক্রিকেটার আছে। কিন্তু শুধু তাদের দিয়েই আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ধারাবাহিকভাবে ম্যাচ জেতা যাবে না। আরও ক্রিকেটার তুলে আনতে হবে। সেটিই পরামর্শ থাকবে। সিনিয়রদের পাশাপাশি উঠতিদের সামর্থ্যটা বের করে আনতে হবে।’

ক্রিকেট ক্যারিয়ার জিম্বাবুয়েতে হলেও কোচিং ক্যারিয়ারের মূল সময়টা ইংল্যান্ডেই কাটিয়েছেন হ্যালসল। এছাড়াও ক্রিকেটীয় কার্যক্রমের জন্য ঘুরেছেন বিভিন্ন দেশে। তবে অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশেই তরুণরা খুব দ্রুত জাতীয় দলে খেলেন বলে জানালেন তিনি, ‘আরও অনেক বড় দলের খুব ভালো ‘এ’ দল ও ইমার্জিং প্লেয়ার্স প্রোগ্রাম থাকে। তার পরও অনেক সময় খেলোয়াড় উঠে আসে না সেভাবে। একদিক থেকে ভাবলে বাংলাদেশের জন্য এটি সুবিধাও যে দ্রুত সরাসরি প্রতিভাবানরা জাতীয় দলে উঠে আসছে। কিন্তু তারপর তাদেরকে উপযুক্ত সমর্থন দিতে হবে।’

২০১৪ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ দলের ফিল্ডিং কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেন হ্যালসল। এরপর দুই বছর কাজ করে পদোন্নতি পেয়ে দলের সহকারী কোচ হিসেবে রুয়ান কালপাগের জায়গা নেন। গত মাস পর্যন্ত ছিলেন টাইগারদের সঙ্গে। তবে গুঞ্জন আছে তাকে নিয়ে অনেক অভিযোগই ছিল জাতীয় দলের খেলোয়াড়দের। তবে সে গুঞ্জন এদিন উড়িয়ে দিলেন হ্যালসল, ‘সিনিয়র ক্রিকেটারদের অবশ্যই নিজস্ব মতামত আছে। আমি সবসময় চেষ্টা করেছি বাংলাদেশ দলকে সেরাটা দিতে। সিনিয়র ক্রিকেটারদের কারও সঙ্গে আমি কোনো সমস্যা দেখিনি। এসব নিয়ে কিছু জানা নেই আমার।’

টাইগারদের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কথা অস্বীকার করলেন হ্যালসল। পরিবারকে সময় দিতেই পদত্যাগ করেছেন বলে জানালেন ৫৯ বছর বয়সী এ কোচ, ‘কারণ পুরোপুরিই পারিবারিক। আমার নতুন পরিবার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনেকটাই সময় কেড়ে নেয়। পরিবার থেকে দূরে থাকতে হয়। এটিই কারণ।’